Bluetooth

 

 Advantages and Disadvantages of Bluetooth

স্বল্প দূরত্বে ডেটা আদান প্রদানের জন্য ব্যবহৃত একটি ওপেন ওয়্যারলেস

প্রটোকল হচ্ছে Bluetooth. Bluetooth 2.4 GHz ফ্রিকুয়েন্সি ব্যান্ডে কাজ করে।

 

Bluetooth এর কার্যকরী দূরত্ব হচ্ছে 3 থেকে 10 মিটার।

তবে বিদ্যুৎ কোষের শক্তি বৃদ্ধি করে এর দূরত্ব 100 মিটার (330 ft)

পর্যন্ত বৃদ্ধি করা যেতে পারে। এর স্ট্যান্ডার্ড হচ্ছে IEEE 802.15

সাধারণত, মোবাইল ফোন, ল্যাপটপ, ডিজিটাল ক্যামেরা, ভিডিও 

গেমস কনসোল,ইত্যাদি ডিভাইসেসমূহের মধ্যে তথ্য আদান-প্রদানে

এটি বর্তমানে বহুল ব্যবহৃত।

 

Bluetooth এর সুবিধাসমূহ :                     Ai

 

 Advantages of Bluetooth

১। স্বল্প দূরত্বে ব্যবহৃত ওপেন ওয়্যারলেস প্রটোকল।

২। স্বল্প তরঙ্গ দৈর্ঘ্যের (UHF- Ultra High Frequency) রেডিও ওয়েব 

     ব্যবহার করা হয়। 

৩। এটি PAN এর ওয়্যারলেস ভিত্তিক নেটওয়ার্ক অথাৎ WPAN

৪। এর ফ্রিকুয়েন্সি ব্যান্ড 2.5 GHz

৫। ব্যপ্তি 3 থেকে 10 মিটার।

৬। সাধারণত ব্লু-টুথ কনফিগার করতে হয় না। 

৭। বিদ্যুৎ খরচ কম।

৮। ডিভাইসগুলোর মধ্যে কোনো বাঁধা থাকলেও যোগাযোগে কোনো 

      অসুবিধা হয় না। 

৯। নেটওয়ার্ক ব্যবহারকারী নিয়ন্ত্রণের জন্য পাসওয়ার্ড ব্যবহার করা হয়। 

১০। এটি ব্যবহার করা বেশ সহজ। 

 

 

Bluetooth এর অসুবিধাসমূহ :

 

Disadvantages of Bluetooth

১। ব্যন্ডউইথ তুলনামূলক কম।

২। নেটওয়ার্কের পরিসর কম যা দিয়ে ১০০ মিটারের বেশি দূরত্বে

      যোগাযোগ রক্ষা করা যায় না। 

৩। ডেটা ট্রান্সফারে নিরাপত্তা কম।

৪। ডেটা স্থানান্তরের ক্ষেত্রে নিরাপত্তা কম। 

৫। ডেটা ট্রান্সফারের স্পিড অনেক কম। 


Read in English 

 

Bluetooth

Advantages and Disadvantages of Bluetooth


An open wireless used to exchange data over short distances

The protocol is Bluetooth. Bluetooth operates in the 2.4 GHz frequency band.

 

The effective distance of Bluetooth is 3 to 10 meters.

However, increasing the power of the cell increases its distance to 100 meters (330 ft).

can be increased up to Its standard is IEEE 802.15.

Usually, mobile phone, laptop, digital camera, video

Games consoles, etc. to exchange data between devices

It is widely used nowadays.

 

Advantages of Bluetooth:                

 

Advantages of Bluetooth

1. Open wireless protocol used over short distances.

2. Short Wavelength (UHF-Ultra High Frequency) Radio Web

     is used.

3. It is PAN based wireless network or WPAN.

4. Its frequency band is 2.5 GHz.

5. Range 3 to 10 meters.

6. Normally Bluetooth does not need to be configured.

7. Low power consumption.

8. Even if there is a barrier between the devices, there is no communication

      No problem.

9. Passwords are used to control network users.

10. It is quite easy to use.

 

Disadvantages of Bluetooth:

 

Disadvantages of Bluetooth

1. Bandwidth is relatively low.

2. The range of the network is less with distances of more than 100 meters

      Communication cannot be saved.

3. Data transfer is less secure.

4. Data transfer is less secure.

5. Data transfer speed is very low.


Thank You for Visit: Unique Update



Previous Post Next Post